Friday , January 19 2018
Home / home / কেমন কাটছে অভিনেতা কল্যাণ কোরাইয়ার দাম্পত্য?

কেমন কাটছে অভিনেতা কল্যাণ কোরাইয়ার দাম্পত্য?

বিয়ে মানে দুটি জীবন অভিযোজিত হয়ে এক হয়ে যাওয়া। আর তাই বিয়ের পিঁড়ি থেকে উঠার পরই বদলে যায় জীবন যাপন পদ্ধতি। বিয়ের পর ব্যাচেলর জীবনের অনেক কিছু যেমন বাদ পড়ে, তেমনি যাপনে যুক্ত হয় নতুন নতুন অনেক বিষয়াদি। একটা সুনিশ্চিত ভবিষ্যৎ গড়তে অনেক অভ্যাসই ত্যাগ করতে হয় বিয়ের পর। ধূমপায়ীদের মধ্যে অনেকেই ধূমপান ছাড়েন, যাদের মধ্যে অর্থ অপচয়ের স্বভাব রয়েছে তাদের অনেকেই হয়ে উঠেন মিতব্যয়ী। বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে হল্লা করে বেশি রাত করে বাড়ি ফেরার বাড়াবাড়িতেও লাগাম টেনে ধরতে হয় এ সময়। এই তো গত ২৭ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে বাবার বন্ধুর মেয়ে ‘গ্রেইস ভায়োলেট ডি কস্তা’র সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধলেন অভিনেতা কল্যাণ কোরাইয়া। শুরু হলো নতুন ইনিংস। সেই সঙ্গে নেমে এলো নতুন বছর।

অভিনেতা কল্যাণ কোরাইয়ার দাম্পত্য জীবনের আজ চতুর্থতম দিন। এদিকে আজ শুরু হলো নতুন বছর। কেমন কাটছে তার দাম্পত্য? নতুন বছরে প্রত্যাশাই বা কী?

২০১৭ তো ভালো গেল। ২০১৮ এর শুরুটাও ভালোভাবেই হলো। এই যে ভালোর ক্রমধারা, এটিই যেন এ বছর থাকে, এই ভালোটিই যেন ২০১৮ সাল ছাড়াও ২০১৯, ২০২০ সহ আসন্ন বছরগুলোতে থাকে, সেটিই আমার প্রত্যাশা– এমনটাই বললেন কোরাইয়া।

বিবাহিত জীবন নিয়ে নতুন বছরে প্রবেশ। তো জীবন যাপনে কিছুটা পরিবর্তন চলে আসবে বৈকি। কোন বিষয়টি বদলে ফেলছেন কল্যাণ? অভিনেতার উত্তর, আগে ব্যাচেলর লাইফে রাত বিরাতে বাড়ি ফিরতে হতো, এখন সেটি বদলে আনব

হানিমুন কী হয়েছে? না হলে কবে হতে পারে? না হানিমুন এখনও হয়নি, তবে এ মাসের হানিমুন করব। জানুয়ারির পরপর ও (অভিনেতা কল্যাণের স্ত্রী) চলে যাবে আমেরিকা। তাই এ মাসেই হানিমুনে যাবার পরিকল্পনা রয়েছে

অভিনেতা কল্যাণের স্ত্রী নাট্য কিংবা চলচ্চিত্রাঙ্গনের মেয়ে নন।ঢাকার হলিক্রস স্কুল অ্যান্ড কলেজে পড়েছেন গ্রেইস। এরপর ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ সম্পন্ন করেছেন। তিনি অভিনেতা কল্যাণের বাবার বন্ধুর মেয়ে। কল্যাণ ও গ্রেইসের আগে থেকে পরিচয় থাকলেও প্রেমের সম্পর্ক ছিল না। পারিবারিক সম্মতিতে তাঁদের বিয়ে হয়েছে বলে জানান কল্যাণ। ওপরদিকে একজন অভিনেতার জীবন তো বৈচিত্র্যময় আবার শুটিংজনিত কারণে অনেক ব্যস্ত থাকতে হয়। এ বিষয়ে দাম্পত্যে কোনো প্রভাব পড়বে কী? নতুন স্ত্রী এ বিষয়টির সঙ্গে যুজতে পারবেন কী? কল্যাণ বলেন, হ্যাঁ, ও যথেষ্ট পরিণত একজন মানুষ। এছাড়াও আমাদের তো হুট করে বিয়ে নয়, অপিরিচিতও ছিলাম না। অনেক আগে থেকেই আমাদের পরিচিয়। বিষয়টি নির্ভর করে, স্বামী-স্ত্রী’র বন্ধুত্বের ওপর। ও যথেষ্ট ফ্রেন্ডলি’।

জীবনসঙ্গী হিসেবে আপনার স্ত্রী ‘গ্রেইস ভায়োলেট ডি কস্তা’ টিপিকাল নয়, তাই তো? কল্যাণ বললেন, ঠিক তাই, ও টিপিক্যাল নয়। দুবছর ধরে আমারা একে অপরকে চিনি’।

নতুন বছর যোগ সদ্য বিবাহিত জীবন, সমান সমান কী হতে পারে? কল্যাণের উত্তর, ‘আগে অভিভাবকেরা আমার ও আমার স্ত্রীর দেখভাল করতেন, এখন আমরা দুজন এক হয়েছি। নতুন বছর এসেছে, কী করলে ভালো হবে, কীভাবে চলব সেই পরামর্শ নেব মুরুব্বিদের কাছ থেকে। তাদের পরামর্শ অনুযায়ী চলার চেষ্টা করব আমরা’।

Check Also

গায়িকা টেইলর সুইফটের নিখুঁত ফিগারের রহস্য!

বিখ্যাত সেলিব্রিটিদের পারফেক্ট ফিগার দেখে কখনো কি আপনার মনে প্রশ্ন জেগেছে, কীভাবে তারা এতো চমৎকার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *