Thursday , February 22 2018
Home / রুপচর্চা / চোখের তলায় কালি ও ক্লান্তি দূর করার উপায় দেখুন ?

চোখের তলায় কালি ও ক্লান্তি দূর করার উপায় দেখুন ?

 

 কিন্তু আজ সকালে ঘুম থেকে উঠে আয়নায় নিজেকে দেখেই আঁতকে উঠলেন। এই অবস্থা হয়েছে মুখের! চোখের তলায় কালি, মুখে ক্লান্তির ছাপ। আবার বন্ধুরা দিওয়ালিতেও গ্র্যান্ড পার্টির আয়োজন শুরু করে দিয়েছে। হাতে রয়েছে মাত্র দিন পনেরো। দেখে নিন বাড়ি বসেই কী ভাবে ত্বকের যত্ন নিয়ে আবার নিজেকে করে তুলবেন গ্ল্যামারাস।
পরিচ্ছন্নতা: প্রথমেই ত্বক ভাল ভাবে পরিষ্কার করুন। পুজোর প্রতি দিন মেক আপ করলেও হয়তো ঠিক ভাবে তোলা হয়নি। বিশেষ করে ভাল করে ধোওয়ার পরও কাজল, মাস্কারা থেকে গিয়ে চোখের তলায় কালির ছাপ থেকে যায়। তাই ত্বক পরিচর্যার শুরুতেই ঠান্ডা দুধে তুলো ভিজিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। বিশেষ খেয়াল রাখুন চোখের চারপাশের ওপর। এই ক’দিন কসমেটিক উপকরণ ব্যবহার না করাই ভাল।
 
খাওয়া দাওয়ার ওপর নজর দিন: আপনার খাওয়া দাওয়ার ওপরই কিন্তু নির্ভর করে ত্বকের স্বাস্থ্য। পুজোর কয়েক দিন অনিয়ম, অস্বাস্থ্যকর খাওয়া দাওয়ার কারণে ত্বকে দেখা দিতে পারে অতিরিক্ত তৈলাক্ত ভাব, ব্রণর মতো সমস্যা। তাই পুজোর পরই ডায়েট সাজিয়ে ফেলুন স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবারে। ভাজাভুজি একেবারেই এড়িয়ে চলুন। রোজ খেতে পারেন ডাবের জল। এতে স্বাস্থ্যও ভাল থাকবে, ত্বকও সুস্থ থাকবে। চাইলে ডাবের জল দিয়ে মুখও ধুতে পারেন। খাবারের তালিকায় রাখুন মাছ, বাদাম, টোম্যাটো, ব্রকোলি বা বীট জাতীয় সবজি।
 
জল: যথেষ্ট পরিমাণ জল খান। মেক আপের মধ্যে থাকা রাসায়নিক আপনার ত্বকের ঔজ্জ্বল্য, আর্দ্রতা নষ্ট করে। তাই প্রথম লক্ষ হওয়া উচিত ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনা। দিনে অন্তত ৬-৮ গ্লাস জল খান। এতে শরীর ডিটক্স করতে সুবিধা হবে। ত্বকও ডিটক্স করবে জল। তবে খেয়াল রাখবেন জল যেন অতিরিক্ত পরিমাণে খেয়ে ফেলবেন না।
রোদ থেকে বাঁচুন: পুজোর ক’টা দিন তো মেঘ-রোদের লুকোচুরি মিলিয়েই কাটল। মেক আপের মধ্যে থাকা রাসায়নিকের সঙ্গে রোদের প্রভাব মিলিয়ে ত্বকের অনেকটা ক্ষতি হয়ে থাকতে পারে। তাই এই কয়েক দিন ভাল করে সানস্ক্রিন ব্যবহার করে ত্বককে সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে রক্ষা করুন। যদি অফিস বা কলেজ যেতে হয় তা হলে সঙ্গে রাখুন ছাতা, সানগ্লাস। তফাত্টা কয়েক দিনের মধ্যেই দেখতে পাবেন।
সময় দিন: এখন মরসুম বদলের সময়। তাই খেয়াল রাখতে হবে বেশি করে। দিনে অন্তত দু’বার ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নিজের ত্বকের ধরন অনুযায়ী টোনিং ও ময়শ্চারাইজিং করে নিন। গরম জলে মুখ না ধোওয়াই ভাল। এতে ত্বকের রোমকূপ খুলে গিয়ে আরও বেশি ময়লা জমে। প্রতি দিন নিয়ম করে নিজের ত্বক অনুযায়ী ক্লিনজিং, টোনিং, ময়শ্চারাইজিং করুন। স্যালোঁতে গিয়ে হার্বাল ক্লিন আপ করিয়ে নিতে পারেন। ত্বককে কিছুটা সময় দিন।
প্রাকৃতিক পার্লার: সময় না থাকলে বাড়িতেই বানিয়ে নিন ট্যান তোলার স্ক্রাব, ফেস প্যাক। পাতি লেবু, হলুদ, চন্দন, মধু, অ্যালোভেরা, শশা, টক দই ইত্যাদি দিয়ে নিজের ত্বক অনুযায়ী বানিয়ে নিন প্যাক বা স্ক্রাব। হাতে যখন দু’সপ্তাহ সময় আছেই তখন আর নষ্ট না করে আবার ত্বকের জেল্লা ফেরানোর কাজে লাগান। কালীপুজোর সেলফিও হবে দুর্গাপুজোর সেলফিগুলোর মতোই আকর্ষক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *