Wednesday , March 28 2018
Home / বিনোদন / মৌলিক নয়, বছরজুড়ে বলিউডে ছিল রিমেকের জোয়ার

মৌলিক নয়, বছরজুড়ে বলিউডে ছিল রিমেকের জোয়ার

বলিউড সিনেমায় গান সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কাহিনী, প্রেক্ষাপটে সিনেমা হিট হোক বা না হোক, গান হতে হবে সুপারহিট। বেশিরভাগ সিনেমায় দেখা যায় দর্শক টানার মূল হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হয় আইটেম গান। কিন্তু এসবের পাশাপাশি এই বছর বলিউডে দেখা গেছে ভিন্ন চিত্র। পুরনো গান নতুন করে রিমেক করে সিনেমায় ব্যবহার করার চল দেখা যাচ্ছে কয়েক বছর ধরে। কিন্তু এই বছরের মতো এত রিমেক আগে আর কখনও দেখা যায়নি বলিউড সিনেমায়। নতুন গানে পুরনোর প্রভাব অবশ্য ইতিবাচকভাবেই নিয়েছেন দর্শকরা। কারণ সিনেমাগুলো দর্শকপ্রিয়তা না পেলেও প্রতিটি গানই ছিল সুপারহিট। এরকম ১৩টি বলিউড সিনেমায় ব্যবহৃত রিমেক গান নিয়ে আমাদের আজকের আয়োজন।

১. রইস (লায়লা)

বছরের প্রথম দিকে একই দিনে মুক্তি পায় ‘কাবিল’ ও ‘রইস’ সিনেমা দুটি। দুটি ছবিতেই ব্যবহার করা হয়েছে পুরনো সিনেমার গান। আশির দশকে ‘কুরবানি’ ছবির ‘লায়লা ম্যায় লায়লা’র নতুন সংস্করণ দেখা গেছে ‘রইস’ সিনেমায়। এ সংস্করণের জন্য নতুন কিছু কথা লিখেছেন জাভেদ আখতার। শুরুতে ড্রামের তালে স্যাক্সোফোনের সুর সহজেই শ্রোতাদের ধরে ফেলে! সংগীতায়োজনে ছিলেন রাম সাম্পাত। গানটি গেয়েছেন পাউনি পান্ডে। নৃত্য পরিচালনায় বোসকো-সিজার। মূল গানের সুরকার কল্যান-আনন্দ। মূল গীতিকার ছিলেন ইন্দিভার। ‘কুরবানি’ সিনেমায় এই গানের তালে তালে ঠোঁট মিলিয়েছিলেন ফিরোজ খান এবং জিনাত আমান। নতুন সংস্করণে পর্দায় ছিলেন শাহরুখ খান ও সানি লিওন।

২. রইস (লায়লা)

এদিকে ‘কাবিল’ সিনেমাতেই ছিল দুটি গানের রিমেক। ১৯৮১ সালে মুক্তি পাওয়া ‘ইয়ারানা’ সিনেমার ‘সারা জামানা’ শিরোনামের গানটি সংগীত পরিচালনা করেছিলেন হৃতিক রোশনের চাচা রাজেশ রোশন। এই গানে কণ্ঠ দিয়েছিলেন কিশোর কুমার এবং সিনেমার পর্দায় দেখা গিয়েছিল অমিতাভ বচ্চনকে। ৩৫ বছর পর ‘কাবিল’ সিনেমায় ‘হাসিনো কা দিওয়ানা’ গানটি রিমেক করা হলো। এই গানে কণ্ঠ দিয়েছেন রাফতার ও পায়েল দেব। গানের তালে আবেদনময়ী পোশাক ও নানা অঙ্গভঙ্গিতে দেখা গেছে উর্বশী রাউটেলাকে।

৩. কাবিল (দিল কেয়া কারে)

এছাড়া ১৯৭৫ সালের ‘জুলি’ সিনেমার ‘দিল কেয়া কারে’ গানটি রিমেক করা হয় একই সিনেমায়। কিশোর কুমারের গাওয়া গানটি নতুন সিনেমায় গেয়েছেন জুবিন নোটিয়াল। রাজেশ রোশনের সুর ও আনন্দ বাকসির কথায় গানটি নতুন করে সংযোজন করেছেন গৌরব-রোশিন, কুমার ও কোহিনুর মুখার্জি।

৪. ওকে জানু (হাম্মা হাম্মা)

এরপর মুক্তি পায় ‘ওকে জানু’, যা দক্ষিণ সিনেমার বলিউড সংস্করণ। এই ছবিতে দেখা গিয়েছে ১৯৯৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘বম্বে’ ছবির বিখ্যাত ‘হাম্মা হাম্মা’ গানটি। ‘বম্বে’ ছবির সঙ্গীত পরিচালনা করেছিলেন এ আর রহমান। তবে ‘ওকে জানু’ ছবিতে ওই গানটিকেই ফের রিমেক করেছেন সঙ্গীত পরিচালক তনিস্ক বাগচী। জুবিন নোটিয়াল ও শাশা তিরুপতি সঙ্গে তাল মিলিয়ে র্যাপ করেন বাদশা। সিনেমায় এই গানের দৃশ্যে অভিনয় করেন শ্রদ্ধা কাপুর ও আদিত্য রয় কাপুর।

৫. বাদ্রিনাথ কি দুলহানিয়া (তাম্মা তাম্মা)

নব্বই দশকে সঞ্জয় দত্ত ও মাধুরী দীক্ষিতের ‘থানেদার’ ছবির ‘তাম্মা তাম্মা’ বলিউড ইতিহাসের অন্যতম জনপ্রিয় একটি গান। সেই গানটি নতুনভাবে আবার ফিরে এসেছে দর্শকের মাঝে। ১০ মার্চ মুক্তি পাওয়া তাদের ‘বদ্রিনাথ কি দুলহানিয়া’ ছবিটিতে গানটির সঙ্গে তাল মেলালেন আলিয়া ভাট আর বরুণ ধাওয়ান। নব্বই দশকে গানটি গেয়েছিলেন বাপ্পি লাহিড়ী আর অনুরাধা পাডোয়াল। নতুন করে গানটি তৈরি করলেন তানিষ্ক বাগচি। আর র‍্যাপ অংশটি গেয়েছেন বাদশা। এবার এই গানে কণ্ঠ দিয়েছেন আমিন সায়ানি।

৬. মেশিন (তু চিজ বাড়ি হ্যায় মাস্ত মাস্ত)

নব্বইয়ের দশকে বলিউডের অন্যতম সেরা গান ‘তু চিজ বাড়ি হে মাস্ত মাস্ত’। গানটির কল্যাণেই অক্ষয় কুমার ও রাভিনা ট্যান্ডন ভক্তদের হৃদয়ে ঝড় তুলেছিলেন। ১৯৯৪ সালে মুক্তি পাওয়া ‘মোহরা’ সিনেমার গাওয়া গানটি আবার রিমেক করা হয়েছে আব্বাস-মাস্তান পরিচালিত থ্রিলার ‘মেশিন’ সিনেমাতে। এতে অংশ নিয়েছেন বলিউডের নবাগত আব্বাস পুত্র নায়ক মুস্তফা বার্মাওয়ালা ও কিয়ারা আদাভানি। পুরনোটির মতো নতুন গানেও কণ্ঠ দিয়েছেন উদিত নারায়ন। নতুন গানে তার সঙ্গে আছেন নেহা কাক্কার।

৭. নুর (গুলাবি আঁখে)

এপ্রিলের ২১ তারিখ মুক্তি পায় সোনাক্ষি সিনহা অভিনীত ‘নুর’ ছবিটি। এতে ‘গুলাবি ২.০’ শিরোনামে একটি গান দেখা গিয়েছে যা পুরনো গানের রিমেক। ১৯৭০ সালে মুক্তি পাওয়া ‘দ্য ট্রেন’ ছবিটিতে অভিনয় করছিলেন রাজেশ খান্না, নন্দা, হেলেন। সত্তর দশকের সেই সিনেমার গানটি গেয়েছিলেন মোহম্মদ রফি। গানের কথা লিখেছিলেন আনন্দ বাকসি ও সুর করেছিলেন আর ডি বর্মণ। এদিকে নতুন রিমেক করা গানটি গেয়েছেন আমাল মালিক, তুলসি কুমার, যশ নারভেকার। নতুন করে গানের কথা ও সুর সংযোজন করেছেন কুমার এবং আমাল মালিক।

৮. তুমহারি সুলু (হাওয়া হাওয়ায়ই)

মি. ইন্ডিয়া’ ছবিতে শ্রীদেবী অভিনীত ‘হাওয়া হাওয়াই’ ব্যবহৃত হয়েছে বিদ্যা বালানের ‘তুমহারি সুলু’তে। অরিজিনাল গানটিতে কবিতা কৃষ্ণমূর্তি একা কণ্ঠ দিলেও এবার গেয়েছেন শাশা তিরুপাতিকে সঙ্গে নিয়ে।

৯. গোলমাল অ্যাগেইন (নিন্দ চুরায়ি মেরি)

নব্বই দশকের ব্যবসাসফল ছবি ‘ইশক’-এর ‘নিন্দ চুরায়ি মেরি’ গানের রিমিক্স সংস্করণ দেখা গেলো এ বছর মুক্তি পাওয়া ‘গোলমাল অ্যাগেইন’ সিনেমায়। ১৯৯৭ সালে মুক্তি পাওয়া সিনেমাটিতে জুহি চাওলা, আমির খান, অজয় দেবগণ ও কাজল অভিনীত গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছিলেন উদিত নারায়ণ, কুমার শানু, কবিতা কৃষ্ণমূর্তি ও অলকা ইয়াগনিক। নতুন সংস্করণে অর্থাৎ এ বছর মুক্তি পাওয়া ‘গোলমাল অ্যাগেইন’ এ দেখা গিয়েছে অজয় দেবগণ, আরশাদ ওয়ার্সি, কুনাল খেমু, তুষার কাপুর, শ্রেয়াস তালপাড়ে ও পরিণীতি চোপড়াকে। নতুন গানের কথা লিখেছেন কুমার এবং সুর করেছেন আমাল মালিক। নীরজ শ্রীধর ও সুকৃতি কাক্কার নতুন গানে কণ্ঠ দিয়েছেন।

১০.রাবতা (রাবতা)

এ বছর মুক্তি পাওয়া ‘রাবতা’ ছবিতে অভিনয় করেছেন কৃতি শ্যানন ও সুশান্ত সিং রাজপুত। কিন্তু ছবির সৌভাগ্য বয়ে আনার জন্য দীপিকা পাড়ুকোনের উপস্থিতি রাখেছিলেন পরিচালক। ‘রাবতা’ সিনেমার একটি বিশেষ গানে দেখা যায় দীপিকা পাড়ুকোনকে। গানটি সাইফ আলী খান ও কারিনা কাপুর খান অভিনীত ‘এজেন্ট বিনোদ’ ছবির ‘রাবতা’ শিরোনামের গান থেকে নেওয়া। প্রীতমের সুরে ‘এজেন্ট বিনোদ’ ছবির গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছিলেন অরিজিৎ সিং, হামশিকা ও জয়। এবারের রিমেকে প্রীতমেরই সুরে গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন নিকিতা গান্ধী।

১১. নাম শাবানা (জুবি জুবি)

১৯৮৭ সালের ‘ডান্স ডান্স’ সিনেমায় ছিল ‘জুবি জুবি’ শিরোনামের গানটি। এই বছর মুক্তি পাওয়া ‘নাম শাবানা’তে একই গানের রিমেক দেখা গেছে। মিঠুন চক্রবর্তী, স্মিতা পাতিল ও মন্দাকিনী অভিনীত সিনেমায় নিজের সুরে গানটি গেয়েছিলেন বাপ্পি লাহিড়ী। সঙ্গে ছিলেন আলিশা চিন্নাই। নতুন গানে কণ্ঠ দিয়েছেন সুকৃতি কাক্কার ও রোচাক কোহলি। সিনেমায় অভিনয় করেন তাপসী পান্নু ও অক্ষয় কুমার।

১২. জুড়ুয়া ২ (উচি হ্যায় বিল্ডিং)

‘জুড়ুয়া ২’ সিনেমার ‘উচি হ্যায় বিল্ডিং’ গানটি ২০ বছর আগের ‘জুড়ুয়া’ সিনেমায় শোনা গিয়েছিল। এই গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছিলেন আনু মালিক। রিমেকেও তার ব্যতিক্রম হয়নি। ‘উঁচি হ্যায় বিল্ডিং’য়ের রিমিক্স সংস্করণ আর পুরনো গানটার মাঝে কয়েকটি ইফেক্ট ছাড়া আর কোনো পার্থক্য খুঁজে পাওয়া যায়নি। আনু মালিক নিজেই স্বীকার করেছেন, ২০ বছর আগের তৈরি গানটাকে একটু আধুনিক শোনাতে শুধু গুটিকয়েক বাদ্যযন্ত্র বদলে দিয়েছেন।

১৩. ইত্তেফাক (রাত বাকি বাত বাকি)

১৯৮২ সালে মুক্তি পাওয়া অমিতাভ বচ্চন, পারভীন ববি ও শশী কাপুর অভিনীত ‘নমক হালাল’ ছবির গান ‘রাত বাকি বাত বাকি’। বাপ্পী লাহিড়ী ও আশা ভোঁসলের গাওয়া সাড়া-জাগানো এ গানটি আবারও ফিরে এসেছে ‘ইত্তেফাক’ ছবিতে। বাপ্পী লাহিড়ীর করা গানটিকে সংযোজন-বিয়োজন করে সংগীতায়োজন করেছেন তানিস্ক বাগচী। মূল গানটি থেকে কয়েকটি লাইন নিয়ে আগে-পিছে অন্য কথা দিয়ে সাজানো হয়েছে গানটি। গ্রুটের সাহায্য নিয়ে এটি লিখেছেন তানিস্ক বাগচী। কণ্ঠ দিয়েছেন নিকিতা গান্ধী ও জুবিন নোটিয়াল।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *