Wednesday , March 28 2018
Home / বাংলাদেশ / পুলিশের দাবি ‘সন্ত্রাসী’, পরিবারের দাবি ‘না’

পুলিশের দাবি ‘সন্ত্রাসী’, পরিবারের দাবি ‘না’

যশোরের ছুটিপুর-এড়েন্দা রোড থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় শিশির ঘোষ (৩৫) ও রাব্বী ইসলাম শুভ (২৭) নামের দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করেছে পুলিশ। তারা নিজেদের মধ্যে সংঘর্ষে গুরুতর জখম হয়েছেন বলে দাবি পুলিশের। তবে আহতের পরিবারের দাবি, আহতরা সন্ত্রাসী না। পুলিশ আটক করে মারপিট করে হাত-পা ভেঙে দিয়েছে।

আহত শিশির শহরের ষষ্টীতলা পাড়া এলাকার নিত্য ঘোষ এবং শুভ বেজপাড়া ফুড গোডাউন এলাকার রবিউল ইসলামের ছেলে।

২৮ ডিসেম্বর ভোর পৌনে পাঁচটার দিকে তাদের গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে পুলিশ।

যশোর কোতোয়ালি থানার ওসি আজমল হুদা দাবি করেন, ভোররাত তিনটার দিকে পুলিশ জানতে পারে যশোরের ছুটিপুর-এড়েন্দা রোড এলাকায় দু’পক্ষের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষ ও গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। তখন পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। ওই সময় শিশির ও শুভকে রক্তাক্ত অবস্থায় পুলিশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

তিনি আরও জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশি পিস্তল, একটি ওয়ান শ্যুটারগান এবং ১৯টি বোমা উদ্ধার করা হয়।

তবে আহত শিশির ও তার বাবা নিত্য ঘোষ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, বুধবার ভোররাতে শিশির ও শুভকে বাগেরহাট জেলার চিতলমারি এলাকা থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে যশোরে নিয়ে আসে। এরপর তাদের চোখ বেঁধে মারপিট করে হাত-পা ভেঙে দেয়। পরে তাদের দুজনের পায়ে গুলি করে।

এদিকে হাসপাতালে আনার পর চিকিৎসকরা বলছেন, উভয়ের একটি করে পা কেটে ফেলতে হবে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভোর চারটার দিকে গুরুতর অবস্থায় শিশির ও শুভকে পুলিশ যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। তাদের দুজনেরই দুই পা ও একটি করে হাত ভেঙে গেছে। তাছাড়া শরীর থেকে প্রচুর রক্তক্ষরণও হয়েছে।

হাসপাতালের সিনিয়র নার্স রেকসোনা একই হাসপাতালের চিকিৎসক বজলুর রশিদ টুলুর উদ্ধৃতি দিয়ে জানান, তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। উভয়কে রক্ত দেওয়া হয়েছে। ২৪ ঘণ্টা পার না হওয়া পর্যন্ত তাদের অবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত বলা যাচ্ছে না।’

ওসি আজমল হুদা বলেন, আহত দুজন গত ২৩ ডিসেম্বর যশোর শহরের টিবি ক্লিনিক এলাকায় চা দোকানি টিপু সুলতান হত্যামামলার এজাহারভুক্ত আসামি। এ ছাড়া তাদের নামে হত্যা, ডাকাতি, ছিনতাই, বোমাবাজিসহ কমপক্ষে ১৫টি করে মামলা রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *