Wednesday , March 28 2018
Home / বাংলাদেশ / গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে

গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে

চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ২৮ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে বিএনপির অবরোধ চলাকালে বাসে পেট্রোল বোমা হামলার ঘটনায় দায়েরকৃত হত্যা মামলায় দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ৫৫ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন কুমিল্লার মুখ্য বিচারিক হাকিমের আদালত। বুধবার যাত্রাবাড়ীতে বাসে পেট্রোলবোমা মেরে মানুষ পুড়িয়ে হত্যার দায়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় অভিযোগপত্র গ্রহণ করে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা এ পরোয়ানা জারি করেন। একই সঙ্গে বিচারক আগামি ২৭ এপ্রিল গ্রেফতারি পরোয়ানা সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য করেছেন।

২ জানুয়ারি মঙ্গলবার দুপুরে এ পরোয়ানা জারি করেন কুমিল্লার অতিরিক্ত মুখ্য বিচারিক হাকিম ও ৫নং আমলি আদালতের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিচারক জয়নব বেগম।

কুমিল্লা আদালতের পিপি মোস্তাফিজুর রহমান লিটন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আইনী প্রক্রিয়া শেষে চার্জশিট গ্রহণ করেছে আদালত। আজ আদালতে খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা শওকত মাহমুদসহ ২০ জন হাজিরা দেওয়ায় বিচারক তাদের জামিন দেন। তবে খালেদা জিয়াসহ কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতারা আদালতে উপস্থিত না থাকায় ৫৫ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

আসামিদের মধ্যে রয়েছেন- খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, সালাউদ্দিন আহমেদ, বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, খালেদা জিয়ার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল, বরকত উল্লাহ বুলু, বিএনপির ঢাকা মহানগরের সদস্য সচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, ছাত্রদলের প্রাক্তন সভাপতি ও বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আজিজুল বারী হেলাল, কাইয়্যুম কমিশনার, লতিফ কমিশনার, মীর আবু জাফর শামসুদ্দিন দিদার, যাত্রবাড়ী এলাকার প্রাক্তন এমপি সালাদ্দিন আহমেদ, তার ছেলে তানভির আহমেদ রবিন, নবী উল্লাহ নবী।

জামিনে রয়েছেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার, চেয়ারপারসনের তথ্য উপদেষ্টা শওকত মাহমুদ, যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, আমান উল্লাহ আমান, সেলিম ভূইয়া ও রফিকুল ইসলাম মাসুম।

কারাগারে রয়েছেন, শহিদুল্লাহ, পারভেজ, সোহাগ ও লিটন। এ মামলায় গত বছর ৬ মে খালেদা জিয়াসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে দন্ডবিধি (হত্যা) এবং বিস্ফোরক আইনে দুটি এবং গত ১৯ মার্চ বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় চার্জশিট দাখিল করেন ডিবি পুলিশের এসআই বশির আহমেদ।

অভিযোগপত্রে ৩৮ আসামির মধ্যে খালেদা জিয়াসহ ৩১ জনকে পলাতক দেখানো হয় । অভিযোগপত্রে খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামী হিসেবে এক নম্বরে রাখা হয়েছে।

গত বছরের ১৬ নভেম্বর হত্যা মামলার অধিকতর তদন্ত শেষে বেগম খালেদা জিয়া, বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী, মনিরুল হক চৌধুরী, জামায়াত নেতা ডা. সৈয়দ আবদুল্লাহ মো. তাহেরসহ ৭৭ জনের বিরুদ্ধে আদালতে এ প্রতিবেদন দাখিল করেন জেলা ডিবির ইন্সপেক্টর ফিরোজ হোসেন।

এর আগে একই ঘটনায় দায়েরকৃত বিস্ফোরক মামলার তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ৬ মার্চ কুমিল্লার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে খালেদা জিয়াসহ মোট ৭৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।

একই বছর ৯ অক্টোবর সোমবার পুলিশের দেওয়া অভিযোগপত্র গ্রহণ করে খালেদা জিয়াসহ পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন কুমিল্লার জেলা ও দায়রা জজ জেসমিনা বেগম।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *