Wednesday , March 28 2018
Home / বাংলাদেশ / কী আছে খালেদার আইনি নোটিশে?

কী আছে খালেদার আইনি নোটিশে?

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। ২০ ডিসেম্বর বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

গত ৭ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার গণভবনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সম্পর্কে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগের পেক্ষাপটে ওই নোটিশ পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

সম্প্রতি বিদেশি একটি প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে কয়েকটি দেশি গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে বলা হয়, ‘দুর্নীতি মামলায় বিচারাধীন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া ও তার পরিবারের সদস্যদের সৌদি আরবে বিপুল পরিমাণ সম্পদ রয়েছে।’ গত ৭ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার গণভবনে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে একজন সিনিয়র সাংবাদিকের প্রশ্নের পরিপেক্ষিতে ওই প্রসঙ্গ তোলেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘সৌদি আরবে যে বিশাল শপিং মল পাওয়া গেল; এটা তো আমরা বলিনি। এই খবর দেওয়ার কোনো আগ্রহ দেখলাম না।’

প্রধানমন্ত্রী প্রশ্ন তোলেন, ‘ওই খবরটি কেন শুধু দুটি সংবাদপত্র ও দুটি টেলিভিশনে প্রকাশ করা হলো, অন্য সংবাদমাধ্যমগুলো কেন তা প্রকাশ ও প্রচার করল না’, এমনকি সম্পাদকরা বিনা পয়সায় শপিং করার কার্ড পেয়েছেন কি না, সেই কারণে খবরটি চেপে গেছেন কি না- এমন প্রশ্নও তোলেন তিনি।

পরদিন নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলগমীর প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, ‘এই মানহানিকর তথ্য প্রচারের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করুন। অন্যথায় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে আমরা বাধ্য হব।’

তিনি বলেন, জিয়া পরিবার নিয়ে প্রধানমন্ত্রী সম্প্রতি যেসব অভিযোগ করেছেন তা প্রমাণ করতে না পারলে আমরা আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেছিলাম। কিন্তু তারা বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন কথা বললেও অভিযোগ প্রমাণে কোনো তথ্য উপস্থাপন করতে পারেননি। তাই আমরা প্রধানমন্ত্রীকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে খালেদা জিয়ার পাঠানো ওই নোটিশে যা বলা আছে-

 

ডিসেম্বর ১৯, ২০১৭

আইনি নোটিশ

রেজিস্টার্ড ডাকযোগে (উইথ এ/ডি) কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে

 

প্রতি

মিসেস শেখ হাসিনা

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার

এবং

প্রেসিডেন্ট

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়

তেজগাঁও, ঢাকা- ১২১৫

 

সূত্র: আইনি নোটিশ

 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া, সড়ক নং- ৮৬, বাড়ি নং- ০৬, গুলশান- ০২, ঢাকা ১২১২ কর্তৃক নির্দেশিত হয়ে আমরা এতদ্বারা আপনাকে নিম্নরূপ জানাচ্ছি যে:

১. বেগম খালেদা জিয়া বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী। তিনি তিন বার বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি বিরোধী দলের নেতা হিসেবেও দুইবার নির্বাচিত হন। তিনি দেশের বৃহত্তম এবং সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র চেয়ারপারসন। তাঁর প্রয়াত স্বামী শহীদ জিয়াউর রহমান (বীর উত্তম) ছিলেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি এবং বাংলাদেশের মুক্তি সংগ্রামে একজন সেক্টর কমান্ডার। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে তার অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ তাকে ‘বীর উত্তম’ উপাধিতে ভূষিত করা হয়।

২. গত ৭ ডিসেম্বর ২০১৭, গণভবনে অনুষ্ঠিত মিডিয়া ব্রিফিংকালে আপনি বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কিছু মানহানিকর বিবৃতি দিয়েছেন যা ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় সম্প্রচারিত হয়েছে এবং সকল দৈনিক পত্রিকা, অনলাইন পত্রিকা এবং অনেক সামাজিক মিডিয়া আউটলেটে মুদ্রিত ও প্রচারিত হয়েছে।

উকিল নোটিশের কপি।

উকিল নোটিশের কপি

উকিল নোটিশের কপি।

৩. উক্ত মিডিয়া ব্রিফিংকালে আপনি বেগম জিয়ার বিরুদ্ধে কিছু মিথ্যা এবং বিদ্বেষপরায়ণ বিবৃতি দিয়েছেন; আপনি বলেছেন যে সৌদি আরবে বেগম খালেদা জিয়া একটি শপিং মলের মালিক এবং সেখানে তাঁর বিপুল সম্পদ রয়েছে এবং তিনি মানি লন্ডারিং এর সঙ্গে জড়িত। আপনি তাঁর পুত্রদের সম্পর্কেও কিছু মিথ্যা উক্তি করেছেন।

৪. আপ‌নি বেগম খা‌লেদা জিয়া একং তার পুত্র‌দের  সম্প‌র্কে যে অভিযোগ এনেছেন তা সাজা‌নো,বা‌নোয়াট, উদ্দেশ্য প্র‌ণো‌দিত এবং বি‌দ্বেষমূলক। বাংলাদেশের নি‌র্দোষ ও প‌রিছন্ন ভাবমূ‌র্তি সম্পন্ন সব‌চে‌য়ে জন‌প্রিয় নেতা হিসেবে বেগম খা‌লেদা জিয়ার সুনাম বিনষ্ট করার হীন উদ্দেশ্য প‌রিকল্পিতভাবে আপ‌নি এসব অভিযোগ এনেছেন। আপনার এই মিথ্যা উদ্দেশ্য প্র‌ণো‌দিত এবং বি‌দ্বেষপূর্ণ বিবৃ‌তি বাংলা‌দে‌শের মানুষ ও বিশ্বজ‌নের কা‌ছে তার ভাবমূ‌র্তি‌কে খা‌টো করার অভিস‌ন্ধি‌তে তৈরী। বেগম খা‌লেদা জিয়া এবং তার প‌রিবা‌রের সদস্য‌দের বিরুদ্ধে আপনার এই মিথ্যা অ‌ভি‌যোগ তার প্র‌তি অবমাননা  ও ঘৃণার সৃষ্টি এবং তাকে হাস্যকর করার উদ্দেশ্যে করা হ‌য়ে‌ছে।

৫. বেগম খা‌লেদা জিয়া ও তার প‌রিবারের সদস্য‌দের বিরুদ্ধে আপনার এই  অপবাদমূলক দীর্ঘ বিবৃ‌তি পরিকল্পিতভা‌বে তাকে রাজ‌নৈ‌তিক ক্যা‌রিয়ার ধ্বংস করার জন্য এবং আপনার নি‌জে‌র রাজ‌নৈ‌তিক সু‌বিধা লা‌ভের হীন উদ্দেশ্যে ডিজাইন করা হ‌য়ে‌ছে। আপনার এই বেপ‌রোয়া ও বি‌দ্বেষপূর্ণ কদু‌ক্তি একাধা‌রে পর‌নিন্দা, অপবাদপুর্ণ ও মানহা‌নিকর, যা বেগম খা‌লেদা জিয়ার স‌র্বোচ্চ সুনাম-সম্মান সততা এবং মর্যাদা‌কে বিনষ্ট করার এবং দে‌শে ও বি‌দে‌শে তা‌কে সামা‌জিক ও রাজ‌নৈ‌তিকভা‌বে খাটো করার হীন উদ্দেশ্য করা হ‌য়ে‌ছে। এই  মানহা‌নিকর বিবৃ‌তির কার‌ণে অপূরনীয় লোকসান ও ক্ষ‌তি হ‌য়ে‌ছে যার জন্য আইনত আপ‌নি দায়ী।

উপরে বর্ণিত প‌রি‌প্রে‌ক্ষি‌তে অত্র আই‌নি নো‌টি‌শের মাধ্য‌মে আমরা আপনাকে বেগম খা‌লেদা জিয়ার নিকট নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করার আহবান জান‌া‌চ্ছি এবং উক্ত ক্ষমা অত্র আই‌নি নো‌টিশ প্রা‌প্তির ৩০ (ত্রিশ) ‌দি‌নের ম‌ধ্যে সকল জাতীয় দৈ‌নিকের প্রথম পৃষ্টায়, ইলেক্ট্র‌নিক মি‌ডিয়া, অনলাইন সংবাদপত্র এবং সামা‌জিক মাধ্য‌মে আউট‌লে‌টে যথাযথভা‌বে প্রকাশ ও প্রচার করার আহ্বান জানা‌চ্ছি, অন্যথায় আপনার বি‌দ্বেষপূর্ণ, মানহা‌নিকর এবং কপট ও কু‌টিল বিবৃ‌তির কার‌ণে আপনার বিরু‌দ্ধে ক্ষ‌তিপূরণ আদা‌য়ের নি‌মি‌ত্তে ব্যবস্থা গ্রহ‌ণের জন্য আমা‌দের উপ‌রে নি‌র্দেশ র‌য়ে‌ছে।

আপনার বিশ্বস্ত

(এ এম মাহবুব উ‌দ্দিন খোকন)

ব্যা‌রিস্টার এট ল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *