Friday , January 19 2018
Home / আন্তর্জাতিক / ফেসবুকে লাইকের জন্য বাবা একি করলেন

ফেসবুকে লাইকের জন্য বাবা একি করলেন

বহুতল ভবনের জানালা দিয়ে বাইরে সন্তানকে ঝুলিয়ে ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বেশি লাইক পাওয়ার আশা করেছিলেন আলজেরিয়ার এক ব্যাক্তি। সন্তানকে ঝুঁকিতে ফেলে লাইক পাওয়ার এ চেষ্টার অভিযোগে দেশটির একটি আদালত ওই বাবাকে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।

ওই ব্যক্তি বহুতল ভবনের জানালায় সন্তানকে ঝুলিয়ে ছবি তোলার পর ফেসবুকে পোস্ট করেন। ছবিতে ক্যাপশন জুড়ে দেন, ১ হাজার লাইক না হলে আমি তাকে ফেলে দিবো। ফেসবুক ব্যবহারকারীরা ওই ছবি দেখার পর সন্তানকে নিপীড়নের অভিযোগে তাকে গ্রেফতারের দাবি জানান।

সন্তানের সুরক্ষা বিপদের মুখে ফেলার অভিযোগ আনা হয়েছে তার বিরুদ্ধে। পরে রবিবার তাকে গ্রেফতার করে দেশটির আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা।

আল-আরাবিয়া এক প্রতিবেদনে বলছে, দেশটির রাজধানী অালজিয়ার্সের একটি ভবনের ১৫ তলার জানালা দিয়ে সন্তানকে বাইরে ঝুলিয়ে ধরেছিলেন অজ্ঞাত ওই ব্যক্তি।

বিডি-প্রতিদিন

‘মুনওয়াক’ স্টেপে ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ করেন তিনি!

তার এক হাত উঠলেই সারি সারি গাড়ি চকিতে থেমে যায়। আবার ঠোঁটের কোণে ঝুলে থাকা বাঁশির আওয়াজে প্রাণ ফিরে পায় যানবাহনেরা। এর জন্য কোনও শব্দ খরচ করতে হয় না তাকে। তিনি ট্রাফিক পুলিস।

ভারতে ইনদওরে রঞ্জিত সিং নামে ৩৮ বছর বয়সী এক ট্রাফিক সার্জেন্ট ‘মুনওয়াক’ স্টেপে নাকি ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ করেন। ব্যস্ত রাস্তায় অত্যন্ত নিপুণভাবে ১২ বছর ধরে এই কাজটি করে আসছেন রঞ্জিত।

রঞ্জিত বলেন, “মাইকেল জ্যাকসনের ভীষণ ভক্ত আমি। ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ করার জন্য ১২ বছর আগে মুনওয়াক স্টেপ কপি করেছিলাম। এই মুনওয়াক স্টেপ বেশ কাজে দিয়েছে। গাড়িগুলো এখন কথা শোনে।”

রাস্তার এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ‘মুন ওয়াক’ স্টেপে হাঁটাচলা করেন তিনি। শরীর, মাথা, হাতও সমান ভাবে তাল মেলায়। রঞ্জিতের এমন অদ্ভুত ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ দেখে অনেকেই গাড়ি থামিয়ে মুগ্ধ হয়ে দেখতে থাকেন।

ইনদওরের রাস্তার পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও সমান জনপ্রিয় এই রঞ্জিত সিং। প্রায় ২০ হাজার ফলোয়ার রয়েছে তার ফেসবুক পেজে।

Check Also

নারী ও শিশু খুন হয়েছে হংকংয়ের বিলাসবহুল হোটেলে

হংকংয়ের বিলাসবহুল হোটেল রিটজ কার্লটনে এক নারী ও এক শিশুকে খুন করা হয়েছে। এ ঘটনায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *