Wednesday , March 28 2018
Home / আন্তর্জাতিক / এবার আগুন লাগল কলকাতা হাই কোর্টে!

এবার আগুন লাগল কলকাতা হাই কোর্টে!

শহরে ফের অগ্নিকাণ্ড। এবার কলকাতা হাই কোর্টে লাগল আগুন। সোমবার সকাল ৯ টা নাগাদ সেন্টেনারি বিল্ডিংয়ে ২৮ নম্বর ঘরে আগুন লেগে যায়। এই ঘরে বিচারপতি জয়মাল্য বাগচির এজলাস বসে। দমকলের ৩টি ইঞ্জিনের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। হতাহতের কোনও খবর নেই। তবে আগুনে পুড়ে নথি নষ্ট হতে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। প্রাথমিক তদন্তে দমকলের অনুমান, সম্ভবত শট সার্কিট থেকে আগুন লেগেছিল। আপাতত কলকাতা হাই কোর্টের সেন্টেনারি বিল্ডিংয়ের ২৮ নম্বর ঘরে কাজকর্ম বন্ধ রাখার পরামর্শ দিয়েছে দমকল। সূত্রের খবর, ঘটনাস্থল থেকে নমুনা সংগ্রহ করবেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা।

ঘড়িতে তখন সকাল ৯টা বাজে। কলকাতা হাই কোর্টে তখনও পুরোদস্তুর কাজকর্ম শুরু হয়নি। আদালত চত্বরে হাজির গুটি কয়েক কর্মী। ছিলেন নিরাপত্তা রক্ষীরাও। তাঁরাই প্রথম সেন্টেনারি বিল্ডিংয়ে ২৮ নম্বর ঘর থেকে আগুনের ফুলকি বেরোতে দেখেন। খবর দেওয়া হয় দমকলে। ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় দমকলের ৩টি ইঞ্জিন। ছুটে আসেন পুলিশকর্মীরাও। দমকল কর্মীদের তৎপরতায় আগুন সেভাবে ছড়াতে পারেনি। দ্রুত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন তাঁরা। অগ্নিকাণ্ডে কেউ হতাহত হয়নি। তবে ২৮ নম্বর ঘরে বিভিন্ন মামলা সংক্রান্ত প্রচুর নথি ছিল। অগ্নিকাণ্ডে সেগুলির ক্ষতি হয়ে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। আপাতত ওই ঘরে কাজকর্ম বন্ধ রাখার পরামর্শ দিয়েছেন দমকল কর্মীরা। সূত্রে খবর, রুটিমাফিক কুলিং পর্ব শেষ হওয়ার পর, বেলার দিকে কলকাতা হাই কোর্টে যাবেন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা। সেন্টেনারি বিল্ডিংয়ের ২৮ নম্বর ঘর থেকে নমুনা সংগ্রহ করবেন তাঁরা। জানা গিয়েছে, ২৮ নম্বর ঘরে বিচারপতি জয়মাল্য বাগচির এজলাস বসে। কিন্তু, কীভাবে আগুন লাগল কলকাতা হাই কোর্টে? প্রাথমিক তদন্তে দমকলের অনুমান, সম্ভবত শর্ট সার্কিট থেকেই কোনওভাবে আগুন লেগে গিয়েছিল।

এ রাজ্যের শীর্ষ আদালত কলকাতা হাই কোর্ট। সুবিচার পাওয়ার আশায় রোজই আদালতে আসেন বহু মানুষ। দিনভর আইনজীবীদের সওয়াল-জবাবে সরগরম থাকে হাই কোর্টের বিভিন্ন কক্ষ। তবে প্রায় ১৫০ বছরের প্রাচীন কলকাতা হাই কোর্টের ঐতিহাসিক গুরুত্ব কিছু কম নয়। ১৮৬২ সালে পরাধীন ভারতের রাজধানীতে কলকাতাতেই প্রথম হাই কোর্ট প্রতিষ্ঠা করেছিল বিট্রিশরা। সোমবার সকালে সেই হাই কোর্টেরই ২৮ নম্বর ঘরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় আতঙ্ক ছড়ায় আদালত চত্বরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *